মোবাইল অ্যাপ দিয়ে টাকা ইনকাম। অ্যাপ দিয়ে কত টাকা ইনকাম করা সম্ভব ?

মোবাইল অ্যাপ দিয়ে টাকা ইনকাম। অ্যাপ দিয়ে কত টাকা ইনকাম করা সম্ভব ?


মোবাইল অ্যাপ দিয়ে টাকা ইনকাম।

আসলে মোবাইল অ্যাপ দিয়ে টাকা ইনকাম হয় ? আসুন দেখে নিই মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ইনকাম হয় নাকি হয়না,আমরা প্লে স্টোরে গিয়ে যদি আর্নিং অ্যাপ বা টাকা ইনকাম এই ধরনের কিছু খোঁজার চেষ্টা করি, তাহলে হাজার অ্যাপ চলে আসে।

 আসলে এগুলো দ্বারা কি আর্নিং হয় ? কেমন পরিমাণ আর্নিং হয ? আর্নিং করতে গেলে কি কি প্রয়োজন হয় ? আজ এ সকল প্রশ্নের উত্তর আপনারা জানতে পারবেন শুধু একটু ধৈর্য সহকারে শুনতে হবে।

প্লে স্টোরের অ্যাপগুলো আসল নাকি নকল ?

এ প্রশ্নগুলো আমাদের অনেকেরই মনে জাগে আসুন দেখে নিই অ্যাপগুলো কেমন হতে পারে। প্লে স্টোরের যে অ্যাপগুলো আছে সেগুলোর 99% ই নকল।যেগুলো দ্বারা কখনো আর্নিং করা সম্ভব না।

তাহলে এখন প্রশ্ন আসতে পারে অ্যাপের মাধ্যম কি ইনকাম করা সম্ভব নয়, অবশ্যই সম্ভব। তবে আপনাকে সঠিক অ্যাপটি নির্বাচন করতে জানতে হবে।

আপনি যদি নকল অ্যাপের মাধ্যমে ইনকাম করার জন্য সময় নষ্ট করে থাকেন তাহলে কোন ফলাফল পাবেন না | সেখান থেকে শুধুমাত্র আপনার সময় নষ্ট হবে, নকল বা ফেক অ্যাকাউন্ট দ্বারা ইনকাম কখনো সম্ভব না

তবে যারা আপনাকে সে অ্যাপটি দিবে অ্যাপ এর মালিক বা অ্যাপ তারা ঠিক ঐ ইনকাম করবে।  গুগল প্লে স্টোরে যে অ্যাপ গুলো রয়েছে সেগুলোর বেশিরভাগই রেফার অ্যাপ। রেফার মানে হচ্ছে আপনি রেফার এর মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।


অ্যাপে লগইন করতে হয় কিভাবে ?

অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন অ্যাপে লগইন করতে হয় কিভাবে। আজকে আপনাদের কে শিখাবো কিভাবে অ্যাপে লগইন করবেন।  প্রতিটি অ্যাপের প্রথমে সাইন আপ করার জন্য আপনাকে একটি ইউজারনেম নির্বাচন করতে হবে, একটি পাসওয়ার্ড নির্বাচন করতে হবে।


 আপনার একটি ইমেইল একাউন্ট দিতে হবে এবং একটি রেফারেল একাউন্ট দিতে হবে এ রেফারেল একাউন্টে হতে পারে আপনার কোনো বন্ধু বা অন্য কারোর তবে বেশিরভাগ অ্যাপ এই রেফারেল কোড ছাড়া সাইন আপ করা যায় না।

 

রেফারেল কোড এর কাজ কি ?


এগুলা হয়তো অনেকেই জানেন অথবা অনেকে জানেন না । আজ আপনাদের বলব রেফারেল কোড এর কাজ কি। আপনি রেফারেল কোড ব্যবহার করে একটি একাউন্ট সাইন আপ করার পরে আপনারও একটি রেফারেল কোড হবে যেটির মাধ্যমে আপনি ও অন্যজনের কাছে রেফার করে আয় করতে পারবেন ।

 এছাড়া ওয়েব গুলোর মধ্যে কিছু সহজ কোশ্চেন থাকে প্রশ্ন উত্তর থাকে যেগুলো সমাধান করে কিছু অল্প সংখ্যক পয়েন্ট পাওয়া যায় এই পয়েন্টগুলো দিয়েও আপনি ইনকাম করতে পারেন ।

অ্যাপ দিয়ে কত টাকা ইনকাম করা সম্ভব ?

 
আসুন জেনে নেই অ্যাপ দিয়ে কত টাকা ইনকাম করা সম্ভব হয়। এই অ্যাপ গুলোর মাধ্যমে আপনি যদি এটা মনে করেন যে অ্যাপের মাধ্যমে ইনকাম করে লাখপতি বা কোটিপতি এরকম হবেন বা হাজার টাকা ইনকাম করবেন তাহলে সেটা কখনো সম্ভব না। 


আপনি অ্যাপের মাধ্যমে ইনকাম করে বড়জোর আপনার মোবাইল খরচ টা চালাতে পারেন এর বেশি কিছু আশা করলে আপনি পারবেন না। একটি অ্যাপ সাধারণত এক ঘন্টা কাজ করার পর 10 থেকে 20 টাকা দেয় এবং প্রতি রেফারে জন্য 2 থেকে 3 টাকা দিয়ে থাকে।


তাহলে এবার ভাবুন আপনি কত ঘন্টা কাজ করে কত টাকা উঠাতে পারবেন । তবে এখানে একটি বড় ধরনের সুবিধা রয়েছে !


মোবাইল অ্যাপ নির্বাচন এবং ইনকাম।

অনেকেই জানেন না কোনগুলো আসল আর কোনগুলো নকল অ্যাপ। আজকে আপনাদের দেখাবো অ্যাপ নির্বাচন এবং ইনকাম করা

 আপনি যে অ্যাপটি তে কাজ করবেন সেটি আপনি নির্বাচন করার জন্য অ্যাপ এর শর্তাবলী তে আপনি লক্ষ্য করে দেখবেন যে, সেখানে 50%রেফার ইনকাম আছে কিনা ।

 যদি 50% রেফারেল ইনকাম থাকে তাহলে আপনি যাকে রেফার করবেন সে যা ইনকাম করবে তার 50% টাকা আপনি পাবেন। এক্ষেত্রে আপনি অনেক তাড়াতাড়ি বড় ধরনের টাকা ইনকাম করতে পারবেন ।

মনে করেন আপনি এক দিনে 20 জনকে রেফার করেছেন এখন মনে করেন এই 20 জন প্রতিদিন যদি দুই হাজার টাকা ইনকাম করে তাহলে সেখান থেকে আপনি 50% রেফারেল এর জন্য 1000 টাকা পেয়ে যাবেন।

এইটাই হচ্ছে অ্যাপ এ কাজ করার সবচাইতে বড় সুবিধা তবে সব অ্যাপ আপনাকে এমন ধরনের রেফারেল সুবিধাটি দিবে না। অ্যাপে ইনকাম মানে আপনাকে বুঝে নিতে হবে যে সেটি রেফারেল ইনকাম।

তারা চায় একজন ইউজার এর থেকে আরো অনেকগুলো ইউজার বাড়াতে যাতে করে তাদের অ্যাপটিতে অনেক ইউজার হয় এবং তারা অধিক পরিমাণে ইনকাম করতে সক্ষম হয়।


পেমেন্ট সিস্টেম

এবারে আসি পেমেন্ট সিস্টেম নিয়ে। আপনি গুগল প্লে স্টোরে যে কোন অ্যাপ এ কাজ করতে গেলেই পেমেন্ট সিস্টেমে গিয়ে দেখবেন বিকাশ, নগদ এই জিনিসগুলো থাকবে।

 তবে সেখানে আপনাকে নির্দিষ্ট একটি পয়েন্ট অর্জন করতে হবে নির্দিষ্ট একটি পয়েন্ট অর্জন এর পরে আপনি আপনার টাকা উইথড্র করতে পারবেন তবে একটি অ্যাপ আপনাকে দীর্ঘ সময় ধরে পেমেন্ট দিতে চাইবে না তাদের নির্দিষ্ট সংখ্যক ইউজার হয়ে যাওয়ার পর সেগুলো বন্ধ করে দেয়।

আসলে মোবাইল অ্যাপ থেকে টাকা ইনকাম করা খুবই কঠিন। অনেক পরিশ্রম করার পরও টাকা আমরা হাতে পাই না। কিছু কিছু অ্যাপ আছে যেগুলো তে টাকা দেয়, কিন্তু বেশিরভাগ টাকা দিবে বলে শর্ত বাড়িয়ে দেয় সে শর্তগুলো পূরণ করতে আমরা পারিনা তাই টাকা টা আমরা হাতে পায় না। সুতরাং মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা অনেক বেশি কঠিন।

কাজ করার আগে যেগুলো যাচাই করবেন

আপনি যদি প্লে স্টোর বা অন্য কোন অ্যাপস এর মাধ্যমে যদি আরনিং করার মাধ্যম খুঁজে পান তাঁর আগে অবশ্যই আপনাকে সেই এপ্স এর রিভিউ গুলো খুঁজে দেখতে হবে। প্লেস্টরে গেলেই আপনি দেখতে পাবেন নিচে তাদের রিভিউ কি দিয়েছে যদি ফাইভস্টার দিয়ে ভালো কোন রিভিউ দেখতে পান এবং তার মাত্রা যদি খুবই বেশি থাকে তাহলে সে অ্যাপটি তে কাজ করতে পারেন। এবং যদি দেখেন যে তাদের রিভিউ খারাপ তাহলে ঐ কাজটি না করাই ভালো কারণ যারা রিভিউ খারাপ দিয়েছে তারা হয়তো বা এর আগে এই কাজ করেছে অথবা সেই অ্যাপস সম্পর্কে তাদের ভাল ধারণা আছে। এবং ইউটিউব অথবা গুগোল এ সমস্ত জায়গায় থাক করে দেখবেন তাদের রিভিউ কেমন দিয়েছে যদি রিভিউ খারাপ দেয় তাহলে কাজ করার দরকার নেই।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url