সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন ২০২২ কিভাবে পাবেন দেখে নিন

সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন  ২০২২


আজকে আমরা এ কনটেন্ট এর মাধ্যমে সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন কিভাবে পাবে এই নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। বর্তমানে সোনালী ব্যাংক বৈধভাবে বিদেশে জনশক্তি রপ্তানি করতে এগিয়ে এসেছে। যারা বর্তমানে অর্থের মাধ্যমে বিদেশে গিয়ে কাজ করতে পারছে না বা বিদেশে যেতে পারছে না তাদেরকে কন্সিদের মাধ্যমে ঋণ দেবে সোনালী ব্যাংক। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে বৈধভাবে বিদেশে যেতে হবে চাকরির উদ্দেশ্যে এবং জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো তে অবশ্যই নিবন্ধন থাকতে হবে। এবং সেই টাকা বিদেশে গিয়ে চাকরির মাধ্যমে কিস্তিতে লোন পরিশোধ করতে হবে।'


কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশ যাওয়ার উদ্দেশ্যে মানুষকে উৎসাহিত করার জন্য বাংলাদেশের বেশকিছু ব্যাংক এ ধরনের ঋণ প্রকল্প চালু করেছে ইতিমধ্যেই। কোনরকম কঠিন শর্ত ছাড়াই এই খেতে স্বল্প সুদে লোন নেওয়ার যাচ্ছে। বেঙ্গলি বর্তমানে ইতিমধ্যে এ প্রকল্প গুলি ভালো রেসপন্স আসছে বলে জানিয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে এখনও অনেক ব্যাংক এই সুবিধাটা চালু করেনি স্পেসিফিক কয়েকটি ব্যাংকিং শুধুমাত্র প্রবাসী লোন দিচ্ছে


সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন  ২০২২

এখন পর্যন্ত বেশ কয়েকটি ব্যাংক প্রবাসী লোন দিচ্ছে তার মধ্যে সোনালী ব্যাংক ইসলামী ব্যাংকসহ আরো কয়েকটি ব্যাংক দিচ্ছে যেমন পূবালী ব্যাংক, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক, এই সমস্ত ব্যাংক গুলো তারা স্কিম এর অধীনে 9 থেকে 14 শতাংশ হারে ঋণ প্রদান করছে। সেই হিসেবে আড়াই থেকে 5 লক্ষ টাকা লোন প্রদান করছে। আর এই ঋণের মেয়াদ থাকবে এক বছর থেকে তিন বছর


সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন নিতে হলে আপনাকে কিছু তাদের রিকোয়ারমেন্ট অনুযায়ী আবেদন করতে হবে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে জনশক্তি কর্মসংস্থান ব্যুরো এর মাধ্যমে নিবন্ধিত থাকতে হবে তাছাড়াও স্পেসিফিকভাবে কিছু রিকোয়ারমেন্ট আছে সেগুলো আমরা পর্যায়ক্রমে নিচে তুলে ধরবো। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন কিভাবে পাবেন এই নিয়ে নিচে তুলে ধরা হলো


যারা বিদেশ যাওয়ার উদ্দেশ্যে একবার ভিসা নিশ্চিত হয়ে গেলে আবেদনকারীকে অবশ্যই ব্যক্তিগতভাবে সংগ্রহকৃত ভিসার দুই কপি ফটোকপি অবশ্যই থাকতে হবে এবং জমা দিতে হবে সেইসাথে আপনার একটি ভ্যালিড পাসপোর্ট এর ফটোকপি থাকতে হবে। পরবর্তীতে এসএমএসের মাধ্যমে অথবা ফোন কলের মাধ্যমে আপনাকে ভেরিফিকেশন করার পরেই আপনি ঋণ পাবার যোগ্য কিনা সে সম্পর্কে জানানো হবে


ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন | ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পদ্ধতি ২০২২


সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন কিভাবে পাবেন

ভিসা এবং পাসপোর্ট এর এর ফটোকপি নিশ্চিত করার পরে আবেদনকারীকে অনুপুস্থিতিতে অন্য একজন আত্মীয় এর মাধ্যমে ঋণ পরিশোধের দায়িত্ব নিতে হবে এমন রিকোয়ারমেন্ট দেওয়া আছে। আত্মীয়দের মধ্যে আর্থিকভাবে সচ্ছল এমন ব্যক্তিকে ঋণের গ্যারান্টার হতে হবে। পরবর্তীতে ভিসার ফটোকপি অনুযায়ী এবং পাসপোর্ট এর ফটোকপি অনুযায়ী ম্যানেজার এর মাধ্যমে ঋণের জন্য আবেদন করতে হবে


সেই সাথে অবশ্য একটি নতুন সত্যায়িত পাসপোর্ট সাইজের ছবি। সেইসাথে ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি, নিবন্ধন আইডি কার্ডের ফটোকপি সত্যায়িত থাকতে হবে, বর্তমানের স্থায়ী ঠিকানা অনুযায়ী চেয়ারম্যান কর্তৃক সনদের সত্যায়িত ফটোকপি প্রদান করতে হবে। 


সোনালী ব্যাংক লোন নেওয়ার জন্য করণীয়

লোন নেওয়ার সময় অবশ্যই কর্মচারীকে একটি সঞ্চয় অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। সেইসাথে সঙ্গে একাউন্টের মাধ্যমে সমস্ত রেমিটেন্স আদান-প্রদান এই একাউন্টের মাধ্যমে পাঠাতে হবে। এবং সেইসাথে বিমানের সম্ভাব্য ফ্লাটের তারিখ এবং ইলেকট্রনিক ফ্লাইট এর টিকিট প্রমাণ স্বরুপ জমা দিতে হবে এবং ভিসার কপি জমা দিতে হবে। সেই সাথে বিদেশে যেই কাজে কর্মরত আছে সেই কাজের একটি রশিদ জমা দিতে হবে। ঋণ পরিশোধের একটি হলফনামা


সোনালী ব্যাংক তারা এই প্রবাসী ব্যাংক লোন এটার নাম দিয়েছে প্রবাসী কর্মসংস্থান প্রকল্প নামে। সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন সর্বাধিক ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে তিন লক্ষ টাকা পর্যন্ত। আর এই অর্থ প্রদানের সময় কাল দেওয়া হয়েছে তিন বছর পর্যন্ত। এই লোন 24 কিস্তিতে অথবা 36 মাসের কিস্তিতে পরিশোধ করতে হবে তাদের রিকোয়ারমেন্ট অনুযায়ী। সেইসাথে অবশ্যই আপনাকে প্রতি মাসে একটি কিস্তি দিতে হবে। সেইসাথে সুদের হার 12%। এই সুদের উপর আর কোন ওষুধ নেওয়া হবে না আপনাকে অবশ্যই প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের অধীনেই ঋণের জন্য আবেদন করতে হবে


ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে 2022 | অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার খরচ


সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন আবেদন কিভাবে করবেন

সোনালী ব্যাংকের নির্ধারিত ফরম পূরণ করে আপনাকে অবশ্যই ঋণের জন্য আবেদন করতে হবে। সেইসাথে পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত ছবি সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে, জাতীয় পরিচয় পত্র, পাসপোর্ট এর ফটোকপি, ভিসা ফটোগ্রাফি, পৌরসভা বা ইউনিয়নের সার্টিফিকেট, বর্তমান ঠিকানা অনুযায়ী সার্টিফিকেট হওয়া লাগবে, এগুলো একই সময়ে দুটি গ্যারান্টার এর মাধ্যমে এগুলো প্রদান করতে হবে


সোনালী ব্যাংকের অধীনে একটি সেভিংস একাউন্ট খুলতে হবে এবং আপনার সেভিংস একাউন্ট অনুযায়ী বিদেশ থেকে পাঠানো রেমিটেন্স গুলো এই একাউন্টের মাধ্যমে আদান-প্রদান করতে হবে। সেইসাথে প্লেনের টিকেট বিদেশে কাজের রশিদসহ পাসপোর্ট এর ফটোকপি সহ সবগুলো তৈরি রাখতে হবে। তাছাড়াও সৌদি আরব দুবাই মালয়েশিয়া বাহরাইন ব্রুনাই কাতার ইটালি ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশের জন্য শুধু 9 পার্সেন্ট হারে দিচ্ছে। তবে সিঙ্গাপুরের ক্ষেত্রে এক বছরের জন্য ঋণ পরিশোধ করার সময় দিয়েছে


সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন আবেদন করার নিয়ম

সোনালী ব্যাংক প্রবাসী লোন আবেদন করতে হলে নির্ধারিত ফরম অনুযায়ী ঋণের জন্য আবেদন করতে হবে সেইসাথে সত্যায়িত ছবি এবং চেয়ারম্যান কর্তৃক সার্টিফিকেটের ফটোকপি ভিসা এবং পাসপোর্ট এর ফটোকপি এবং বিদেশে কর্মরত আছেন তার প্রমান হিসাবে একটি রশিদ এবং পরবর্তীতে কোন সমস্যার ক্ষেত্রে ঋণ পরিশোধের জন্য গ্যারান্টার একজন আত্মীয়র মাধ্যমে আবেদন করতে হবে


বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়ার উপায় | ইতালিতে বেতন কত?

সোনালী ব্যাংক কি কি লোন দেয়

বর্তমানে সোনালী ব্যাংকের সাথী প্রকল্পের মাধ্যমে ঋণ প্রদান করছে। আর এই লোন নিতে হলে অবশ্যই তাদের রিকোয়ারমেন্ট অনুযায়ী নিতে হবে এবং উক্ত ক্যাটাগরির মাধ্যমেই যে কেউ ঋণের জন্য আবেদন করতে পারবে

  • এস এম আই লোন
  • কৃষি লোন
  • শিক্ষক সরকারি চাকরিজীবীদের লোন
  • শিল্প প্রকল্প লোন
  • সোনালী ব্যাংক হোম লোন
  • প্রবাসী কর্মসংস্থান
  • আন্তর্জাতিক বাণিজ্য লোন


সোনালী ব্যাংক প্রবাসী কর্মসংস্থান লোন

জনশক্তি এবং প্রবাসী কল্যাণ সংস্থার জন্য বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে যারা বিদেশে কাজের উদ্দেশ্যে যাবেন তাদের জন্য বিমান ভাড়া বাবদ সরকারি নিয়ম অনুযায়ী কমিশন সার্ভিস ফোন নাম্বার সহ প্রকৃত খরচের জন্য 100% তবে আপনাকে অবশ্যই সর্বোচ্চ তিন লক্ষ টাকা লোন দেওয়া হবে সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে


সোনালী ব্যাংকের লোনের মেয়াদ

সোনালী ব্যাংকের লোনের মেয়াদ 3 বছর। এই তিন মাসের গ্রে পিরিয়ডসহ 36 মাস মেয়াদী লোন নিতে পারবেন। তার আগে অবশ্যই আপনি যে দেশে চাকরি করতে যাবেন সে দেশের চাকরির কন্টাক্ট ফর্ম অনুযায়ী উল্লেখিত বর্ণনা এর মাধ্যমে লোনের জন্য মেয়াদ নির্ধারণ করা হবে


যারা বিদেশ যাওয়ার জন্য চূড়ান্তভাবে নিয়োগ পেয়েছেন তারা এই ভিসাসংক্রান্ত এবং পাসপোর্ট সংক্রান্ত সকল তথ্য এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এর মাধ্যমে যেকোনো নাগরিক এই ঋণের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে এই ঋণের শর্ত অনুযায়ী আবেদনকারীকে অবশ্যই নিকটতম আত্মীয় মাধ্যমে আবেদন করতে হবে যাতে পরবর্তীতে কোন ড্রোন মওকুফের জন্য সেই ব্যক্তির মাধ্যমে পরিশোধ করতে পারে

বাংলাদেশ থেকে কুয়েত ভিসা 2022 বিস্তারিত |  কুয়েতের বেতন কত ?


Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url