ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন | ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পদ্ধতি ২০২২

ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন


আজকে আমরা কথা বলবো ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন সুবিধা। বিদেশ যাওয়ার জন্য অনেকের ইচ্ছা থাকে কিন্তু টাকার অভাবে টাকার জনিত অন্যান্য সমস্যার কারণে অনেকেই বিদেশে যেতে পারছে না। সে ক্ষেত্রে বর্তমান ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন চালু করেছে। এই লোনের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে মানুষ প্রবাসে যেতে পারবে এবং ইনকাম করতে পারবে। তাই যাদের সামর্থ্য নাই চাইলে তারাও বর্তমানে ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে প্রবাসী লোন নিয়ে বিদেশে পাড়ি জমাতে পারবে এবং বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে পারবে। তাহলে চলুন কিভাবে ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পাবেন এবং এই লোন নেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব


বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি ব্যাংকেই প্রবাসী লোন চালু আছে তবে বিশেষ ক্ষেত্রে কিছুই স্পেসিফিক ব্যাংক গুলোতে ভালো সুবিধা দিচ্ছে তার মধ্যে ইসলামী ব্যাংক একটি অন্যতম প্রবাসী লোন এর জন্য। সেই হিসাবে বর্তমানে অন্যান্যদের তুলনায় ইসলামী ব্যাংক কিছুটা সুবিধা দিয়ে থাকে তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক ইসলামী ব্যাংক লোন নেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে এবং কিভাবে লোন পাবেন এবং লোকজনের জন্য কিভাবে আবেদন করবেন এই নিয়ে বিস্তারিত


 ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন 2022

ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন বর্তমান 2022 এ ভালো সুবিধা দিচ্ছে। বাংলাদেশের অন্যান্য ব্যাংকের তুলনায় অন্যতম হচ্ছে ইসলামী ব্যাংক। এ দেশের প্রায় প্রতিটি নাগরিকদের জন্য বিভিন্ন রকম লোন সুবিধা দিয়ে থাকে তার মধ্যে ইসলামী ব্যাংক ও ব্যাতিক্রম নয়। ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশের অন্যতম একমাত্র হালাল ও ইসলামী শরীয়া অনুযায়ী চলে থাকে। তবে ইসলামী ব্যাংক নিয়ে অনেকের কাছে বিভিন্ন রকম অভিযোগ রয়েছে। অনেকের মধ্যেই অনেক রকম মতবাদ রয়েছে তবে আমরা সেদিকে না যাই আমরা কিভাবে ইসলামী ব্যাংক থেকে প্রবাসী লোন পাবেন সে বিষয়টা ক্লিয়ার করি


তবে আপনাদেরকে এটা জানা রাখা উচিত যে বিশ্বের সব ব্যাংকগুলোতে সুদের উপর নির্ভরশীল হয়ে থাকে। প্রায়ই ধরা চলে সুর ছাড়া প্রতিটি ব্যাংকে একদমই অচল। ইসলামী ব্যাংক থেকে সরাসরি লোন হিসেবে বিবেচিত না করে। তারা এই লোন সুবিধা কে বলে থাকে ইনভেস্টমেন্ট বা বিনিয়োগ করা। ইসলামী ব্যাংক ও অন্যান্য ব্যাংকের মতো প্রবাসীদের লোন সুবিধা বর্তমানে দিচ্ছে


রোমানিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি?   সুযোগ সুবিধা কেমন এবং সেলারি কত?


ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পদ্ধতি ২০২২

বর্তমানে বিদেশ যাওয়ার জন্য ইসলামী ব্যাংক লোন প্রদান করছে। এই লোন নেওয়ার জন্য আপনার রিকোয়ারমেন্ট প্রয়োজন। ইসলামী ব্যাংকের রিকোয়ারমেন্ট অনুযায়ী যদি আপনি কাগজ পত্র প্রদান করতে পারেন তাহলে ইসলামী ব্যাংক লোন পাওয়ার যোগ্য আপনি হবেন। আর এই লোন নিতে হলে আপনাকে কিছু নিয়ম ফলো করা লাগবে পর্যায়ক্রমে আমরা নিয়ম গুলো তুলে ধরলাম নিচে


ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন উদ্দেশ্য

ইসলামী ব্যাংক প্রবাসীসহ উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য বিনিয়োগ প্রকল্প তৈরি করেছে তাই ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে প্রবাসী এবং উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য লোন প্রদান করছে

  • প্রবাসীদের বিনিয়োগ সুবিধা তৈরি করা এবং বৈদেশিক মুদ্রা আদান প্রদান করা
  • ক্ষুদ্র এবং মাঝারি উদ্যোক্তা বিনিয়োগ হতে উৎসাহিত করা
  • ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে বৈদেশিক রেমিট্যান্স প্রদানে উৎসাহিত করা
  • সকল প্রবাসী সন্তান এবং কর্মসংস্থানসহ বাসা বাড়ি তৈরীর জন্য সুযোগ তৈরি করা
  • দারিদ্র বিমোচন এবং প্রবাসীদেরকে উন্নয়ন করতে উৎসাহিত করা
  • উদ্যোক্তা তৈরি হতে সাহায্য করা
  • প্রবাসীদের জীবন উন্নয়ন মান উন্নত করা


ইসলামী ব্যাংক কোন খাতে লোন দেয়

বর্তমানে ইসলামী ব্যাংক ইসলামী শরীয়া অনুযায়ী বিভিন্ন ক্ষেত্রে লোন প্রদান করছে। উপরোক্ত খাতসমূহ নিয়মিত পর্যায়ক্রমে লিস্ট আকারে তুলে ধরা হলো। এই খাতের মধ্যে বিভিন্ন স্পেস কিভাবে ডাক্তার গাড়ি ছোট ব্যবসার জন্য লোন প্রদান করে থাকে

  • হাউজহোল্ড লোন
  • মাইক্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লোন
  • ডাক্তার লোন
  • কৃষি বাস্তবায়ন লোন
  • ট্রান্সপোর্ট লোন
  • রিয়েল এস্টেট লোন
  • গাড়ি লোন
  • রিয়েল এস্টেট বাণিজ্যিক লোন
  • ছোট ব্যবসা লোন
  • ইসলামী ব্যাংক কৃষি লোন
  • মহিলা উদ্যোক্তা লোন
  • প্রবাসী লোন

ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন কিভাবে পাবেন

যারা দীর্ঘদিন যাবত বিদেশে জীবনযাপন করছেন এবং কাজের জন্য বিদেশে অবস্থান করছেন সেই সমস্ত নাগরিক সকল ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পাবেন। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনি যে দেশে বসবাস করছেন বা কাজ করছেন সে দেশের ভিসা এবং পাসপোর্ট অবশ্যই থাকতে হবে। আপনি যে কোম্পানিতে কাজ করছেন সেই কোম্পানির কাগজ এবং প্রয়োজনীয় অন্যান্য ডকুমেন্ট অবশ্যই থাকতে হবে। তবে আপনি ইসলামী ব্যাংক লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন


তবে যে সমস্ত প্রবাসীরা ইসলামী ব্যাংকের সঙ্গে টাকা আদান প্রদান করে থাকে তাদের জন্য রয়েছে বিশেষ অগ্রাধিকার। এর জন্য অবশ্যই আপনার ভিসা পাসপোর্ট সহ দুইজন গ্যারান্টার লোক থাকতে হবে যেটা আপনার আত্মীয়দের মধ্যে। এবং তারা যেন আর্থিকভাবে সচ্ছল স্বাবলম্বী হয় এমন দুজন ব্যক্তিকে অবশ্যই থাকতে হবে


ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন কিভাবে আবেদন করবেন

ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের যেকোনো একটি নির্দিষ্ট শাখায় যেতে হবে এবং সেখান থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে হবে। আবেদন পত্রের নিয়ম অনুযায়ী সঠিক ভাবে আবেদনপত্র পূরণ করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে। এবং আবেদনপত্রের সাথে অবশ্যই আপনার পাসপোর্ট এর ফটোকপি এবং ভিসা এর ফটোকপি এটাস্ট করতে হবে। প্রয়োজনে অন্যান্য বিষয়ে লাগলে এই নাম্বারে ফোন করতে পারেন 09611016259

এবং মনে করে অবশ্যই আপনার এনআইডি কার্ড এর ফটোকপি এবং দুই কপি ছবি সহ আপনার পাসপোর্ট এর ফটোকপি এবং ভিসা এর ফটোকপি সাথে নিয়ে যেতে হবে সেইসাথে আপনার নমিনি প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো অবশ্যই সঙ্গে নিয়ে যাবেন


ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন কারা পাবে

ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পেতে হলে অবশ্যই আপনাকে নির্দিষ্ট দেশে গিয়ে কাজ করতে হবে এবং আপনি যেই কোম্পানিতে কাজ করছেন সেই কোম্পানির রশিদ থাকতে হবে। এবং সেইসাথে আপনার পাসপোর্ট এবং ভিসা ফটোকপি থাকতে হবে। এগুলো যদি থাকে এবং আপনি যদি প্রবাসে অবস্থান করেন তাহলে ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। যাদের ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট আছে এবং টাকা আদান প্রদান করে থাকে তাদের জন্য বেশি সুবিধা পাবে


Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url